প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি ‘স্বপ্নদ্বীপ’

সবুজে ঘেরা অপার সৌন্দর্যের এক লীলাভূমি ‘স্বপ্নদ্বীপ’। ঢাকার অদূরে অবস্থিত এই দ্বীপের চারদিকে রয়েছে নদী বেষ্টিত মনোরম সৌন্দর্য। সবুজের সমারহ ও নদীর নির্মল বাতাস আপনার মনকে নিমেষেই সতেজ করে তুলবে। সাপ্তাহিক অবসরে এক দিনের জন্য ঘুরে আসতে পারেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর এই দ্বীপে।
পর্যটন স্থান হিসেবে ২০১৯ সালে পরিচিতি পেলেও চলতি বছরের ১১ জানুয়ারি উদ্বোধনের মাধ্যমে সকলের জন্য উন্মুক্ত করা হয় ‘স্বপ্নদ্বীপ’। উন্মুক্ত করার পর থেকেই বাড়ছে পর্যটকদের ভিড়। বিনদোন ও বিশ্রামের জন্য দ্বীপের কূল ঘেঁষে তৈরি করা হয় রেস্ট হাউজ।

দ্বীপে কেউ রাত্রি যাপন বা ক্যাম্পিং করতে চাইলে আগে থেকেই দিতে হবে বুকিং। স্বপ্নদ্বীপে রয়েছে একাধিক পিকনিক স্পট। চাইলে পিকনিক করার জন্য পরিবার নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন। এ ছাড়াও দ্বীপটিতে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও খেলার আয়োজন করার ব্যবস্থা রয়েছে। ভ্রমণের আনন্দ দ্বিগুণ করতে রয়েছে ওয়াটার বোট। পর্যটকদের খাবারের জন্য রয়েছে রেস্টুরেন্ট। যদিও রেস্টুরেন্টে খাবারের জন্য আগে থেকে যোগাযোগ করে আসতে হবে।

কোথায় অবস্থিত?
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার চরশিবপুরে অবস্থিত স্বপ্নদ্বীপ।

কিভাবে যাবেন?
ঢাকার গুলিস্থান থেকে বিআরটিসি বাসে, সায়দাবাদ থেকে অভিলাষ বাসে, যাত্রাবাড়ী থেকে সিএনজি এবং কুড়িল বিশ্বরোড থেকে সিএনজি অথবা ট্যাক্সি যোগে যেতে পারেন বিশনন্দী ফেরি ঘাট। বিশনন্দী ফেরি ঘাট থেকে ট্রলারে করে যেতে হবে স্বপ্নদ্বীপে (ভাড়া আলোচনা করে ঠিক করে নিতে হবে)।

এ জাতীয় আরও প্রবন্ধ